হাইলাকান্দিতে অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী এলাকায় পুনরায় মিজো আগ্ৰাসন। সীমান্ত এলাকায় বসবাসরত স্থানীয় নাগরিকদের দুটি বসতবাড়ি জ্বালিয়ে দিল মিজো আগ্ৰাসনকারীরা। রাজ্যের বন ও পরিবেশ বিভাগের মন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্যকে একজন ব্যর্থ মন্ত্রী বলে আখ্যায়িত করলেন কাটলিছড়ার বিধায়ক সুজাম উদ্দিন লস্কর।

হাইলাকান্দিতে অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী এলাকায় পুনরায় মিজো আগ্ৰাসন। সীমান্ত এলাকায় বসবাসরত স্থানীয় নাগরিকদের দুটি বসতবাড়ি জ্বালিয়ে দিল মিজো আগ্ৰাসনকারীরা। রাজ্যের বন ও পরিবেশ বিভাগের মন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্যকে একজন ব্যর্থ মন্ত্রী বলে আখ্যায়িত করলেন কাটলিছড়ার বিধায়ক সুজাম উদ্দিন লস্কর।

হাইলাকান্দিতে অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী এলাকায় পুনরায় মিজো আগ্ৰাসন।

- হাইলাকান্দি জেলার অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী এলাকায় পুনরায় মিজো মিজো আগ্ৰাসন। সীমান্তবর্তী এলাকায় মিজো আগ্ৰাসনকারীদের তাণ্ডবে অতিষ্ট জনজীবন। শুক্রবার হাইলাকান্দি জেলার অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী গল্লাছড়া এলাকায় বসবাসরত দুটি অমিজোদের ঘর-বাড়ি জ্বালিয়ে দিল মিজো দুর্বৃত্তরা। প্রথমে মিজো আগ্ৰাসনকারীরা সীমান্তবর্তী এলাকার কচুরতল, এরপর ঝালনাছেড়া এবং বর্তমানে গুটিগুটি ও গল্লাছড়া এলাকায় মিজো দুর্বৃত্তরা তাদের আগ্ৰাসন চালিয়ে যাচ্ছে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থলে শনিবার গিয়ে উপস্থিত হন হাইলাকান্দি জেলার নবাগত জেলা উপায়ুক্ত রোহন কুমার ঝা এবং পুলিশ সুপার ড: রমনদীপ কৌর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন চক্রবর্তী সহ প্রশাসনিক উচ্চপদস্থ আধিকারিক সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। পুনরায় অসমের জমীতে আগ্ৰাসন চালাল মিজো আগ্ৰাসনকারীরা। হাইলাকান্দি জেলার অসম-মিজোরাম সীমান্তবর্তী অঞ্চল গুটিগুটিতে মিজো দুর্বৃত্তরা নির্মাণ করেছে তাদের আস্তানা এবং অতিথিশালা। আন্তরাজ্যিক সীমান্তবর্তী এলাকার প্রায় চার কিলোমিটারের ভিতরে থাকা অসমের ভুমিতে অবৈধভাবে আগ্ৰাসন চালিয়ে মিজো দুর্বৃত্তরা নির্মাণ করেছে তাদের আস্তানা এবং অতিথিশালা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন ধরে সীমান্তবর্তী এলাকায় চলছে টানটান উত্তেজনা। বর্তমানে অসম মিজোরাম সীমান্তবর্তী এলাকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে হাইলাকান্দির নবাগত জেলা উপায়ুক্ত রোহন কুমার ঝা এবং পুলিশ সুপার ড: রমনদীপ কৌর ঘটনাস্থলে ছুটে যান। বর্তমানে সীমান্তবর্তী অঞ্জলে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে এবং সীমান্তবর্তী এলাকাতে দুইরাজ্যের পুলিশ এবং আধা-সামরিকবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে এই মিজো আগ্ৰাসনের উপর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তীব্র ক্ষোভ ব্যক্ত করেছেন কাটলিছড়ার বিধায়ক সুজাম উদ্দিন লস্কর। তিনি আজ এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই মিজো আগ্ৰাসনের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে রাজ্যের বন ও পরিবেশ বিভাগের মন্ত্রী পরিমল শুক্লবৈদ্যকে একজন ব্যর্থ মন্ত্রী বলে আখ্যায়িত করেছেন। এরসঙ্গে তিনি বিগত পাঁচ বছরের সর্বানন্দ সানোয়াল সরকারের ন্যায় বর্তমান হিমন্ত বিশ্ব শর্মার সরকারও অসমের মাটি ভেটি রক্ষা করতে সম্পুর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন

LEAVE A COMMENT

Comment