অশ্লীল চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রকাশ এর মূল কাণ্ডারি শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বই পুলিশ।

অশ্লীল চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রকাশ এর  মূল কাণ্ডারি শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বই পুলিশ।

মলাদ পশ্চিমের মধ্যগ্রামে ভাড়া করা বাংলোয় পর্নো ভিডিও শ্যুট চলছিল, এপিআই লক্ষীকান্ত সালুনখে খবর পেয়ে অভিযান চালান।

মুম্বাই এর মলাদ পশ্চিমের মধ্যগ্রামে ভাড়া করা বাংলোয় পর্নো ভিডিও শ্যুট চলছিল। এপিআই লক্ষীকান্ত সালুনখে খবর পেয়ে অভিযান চালান। অশ্লীল চলচ্চিত্র নির্মাণ ও কিছু অ্যাপের মাধ্যমে প্রকাশের জন্য শিল্পা শেটির স্বামী রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। উপযুক্ত প্রমাণ পুলিশের আয়ত্বে আসার পর রাজ কুন্দ্রা কে  গ্রেপ্তার করে মুম্বই পুলিশ। ২০২১ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি মালওয়ানি থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধি, তথ্য প্রযুক্তি আইন, এবং নারী-পুরুষের প্রতিনিধি (নিষিদ্ধ) আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছিল। তদন্তে নামে পুলিশ, মুম্বাই পুলিশ জানান ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রা এই মামলায় মূল ষড়যন্ত্রকারী এই প্রমান তাদের কাছে রয়েছে । শার্লিন চোপড়া এবং পুনম পাণ্ডে মহারাষ্ট্র সাইবার সেলকে জানান রাজ কুন্দ্রার হাত ধরেই তাঁরা অ্যাডাল্ট ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছেন। শার্লিন চোপড়াকে প্রত্যেক প্রজেক্টের জন্য ৩০ লক্ষ টাকা করে দিতো রাজ কুন্দ্রা। রাজের  হয়ে শার্লিন চোপড়া এমন ১৫ থেকে ২০ টি  প্রজেক্টে কাজ করেছেন। পর্ণো ভিডিও কে অভিযুক্তরা ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, টেলিগ্রাম, এবং হোয়াটসঅ্যাপ সহ সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলির মাধ্যমে অশ্লীল ভিডিওগুলির ট্রেলার প্রকাশ করতো। তাছাড়া অশ্লীল ভিডিও  পর্ন সাইট এবং মোবাইল অ্যাপগুলিতে আপলোড করতো। সাবস্ক্রাইবারদের অ্যাপ্লিকেশন  ডাউনলোড করতে হতো এবং তাদের ডিভাইসে ভিডিও দেখার জন্য অর্থ প্রদান করতে হতো । এই সংস্থাগুলি এই জাতীয় ভিডিওগুলির মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ উপার্জন করছিলো।

LEAVE A COMMENT

Comment