ভাঙ্গায় অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের জোনাল কমিটির সভায় ২৫ সেপ্টেম্বর ভারত বনধকে সমর্থন।

ভাঙ্গায় অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের জোনাল কমিটির সভায় ২৫ সেপ্টেম্বর ভারত বনধকে সমর্থন।

ভাঙ্গায় অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের জোনাল কমিটির সভায় ২৫ সেপ্টেম্বর ভারত বনধকে সমর্থন।

 
দিল্লির সিংঘু বোর্ডারে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার মঞ্চে দেশের  কৃষক, শ্রমিক, ছাত্র, যুব ও মেহনতি জনতার সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে ২৬ ও ২৭ আগস্ট এক সম্মেলন অনুষ্ঠিত  হয়। এ সম্মেলনে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর 'ভারত বনধ'-এর ডাক দেওয়া হয়। অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভায় এই বনধ সর্বাত্মকভাবে সফল করে তোলার জন্য প্রস্তাব গৃহীত হয়। করিমগঞ্জ জেলার ভাঙ্গায় অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের দক্ষিণ আসাম জোনাল কমিটি আয়োজিত সভায় অনুষ্ঠিত হয়। এদিন, ইউনিয়নের সভাপতি কমরেড মানস দাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায়  স্বাগত বক্তব্য রাখেন শান্তনু দাস। তিনি সভার  উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করেন। এদিন, বরাকের তিন জেলার প্রতিনিধিরা সময়ের কাজকর্মের  বিবরণ তুলে ধরেন ও আগামী দিনের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করেন। 
এদিকে, জনবিরোধী তিনটি কৃষি আইন, শ্রমিক স্বার্থবিরোধী 'শ্রম কোড', পেট্রোপণ্য সহ অত্যাবশকীয় পণ্যের আকাশছোঁয়া মূল্যবৃদ্ধি, সরকারি ও রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার ব্যাপক বেসরকারিকরণ, রেশন ব্যবস্থা তুলে দেওয়ার ষড়যন্ত্র, বেহাল শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ইত্যাদির বিরুদ্ধে এই বনধ-এর ডাক বলে জানান ইউনিয়নের কর্মকর্তারা। তাদের অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে অসংগঠিত  ক্ষেত্রে কর্মরত শ্রমিকদের মজুরি ও সামাজিক সুরক্ষা তথা জীবনের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা প্রদান এবং কৃষকদের উৎপাদিত ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের গ্যারান্টি সহ আন্যান্য দাবিও রয়েছে বলে জানান তারা। অসম মজুরি শ্রমিক ইউনিয়ন ও সারা ভারত কৃষক মজদুর সভার প্রতিনধি দল, যারা দিল্লির কৃষক আন্দোলনে আসামের প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন তারা এদিনের সভায়  অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন।

সারা ভারত কৃষক মজদুর সভার বরাক উপত্যকা কমিটির সভাপতি কমরেড ফারুক লস্করের উপস্থিতিতে তাদের সংবর্ধনাও  জ্ঞাপন করা হয়। ভারত বনধ কর্মসূচি পালনের লক্ষ্যে ইউনিয়নের সদস্যরা প্রচারপত্র বিলি ও সভার মাধ্যমে বরাক উপত্যকা জুড়ে এই বনধ-এর সমর্থনে প্রচার অভিযান চালাবেন এবং বনধ সফল করতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।
 

LEAVE A COMMENT

Comment